অনলাইনে আছেন

  • জন ব্লগার

  • ৪২ জন ভিজিটর

সকল পোস্ট (ক্রমানুসারে)

দারিদ্র্য বিমোচনে ইসলামের অনন্য ভূমিকা....

লিখেছেন লাবিব আহসান ২০২১-১০-১৮ ০৫:০৬:৩১

একটা সময় পর্যন্ত আমি স্বেচ্ছা দারিদ্র্য জীবন বেছে নেয়ার কথা ভাবতাম। মনে হতো, এতেই জীবনের সৌন্দর্য নিহিত। কিন্তু একথা অনস্বীকার্য যে, একজন দরিদ্র মানুষ মানুষ জন্য যতো না অবদান রাখতে পারে, একজন ধনী তার চাইতে বেশি অবদান রাখতে পারে। সত্যি বলতে,  দারিদ্র্যতা এক নির্মম অভিশাপ। এ অভিশাপ মানুষকে কুঁরে কুঁরে খায়। সমাজ-সভ্যতাকে এগিয়ে নেয়ার পরিবর্তে পিছিয়ে দেয়। এটা মানবতাকে পশুত্বের পর্যায়ে নামিয়ে দিতে পারে। দারিদ্রে্যর কশাঘাতে ও ক্ষুধার নির্মম যাতনায় অভাবের অনলে জীবন্ত দগ্ধ হয়ে ন্যায়-অন্যা...বাকিটুকু পড়ুন

০ টি মন্তব্য      ৪২৬ বার পঠিত     

সংস্কৃতি ভাবনা......

লিখেছেন লাবিব আহসান ২০২১-১০-১২ ০৩:৪১:২৫

বছর কতক আগে এসএ টিভিতে একটি গানের প্রতিযোগিতা প্রচারিত হয়েছিলো। সেই প্রতিযোগিতায় বিচারক প্যানেলে ছিলেন কিংবদন্তী সঙ্গীতশিল্পী এন্ড্রু কিশোর, আইয়ুব বাচ্চু, ফেরদৌসী রহমান এবং কিরণ চন্দ্র মজুমদার। গানের সেই প্রতিযোগিতাটির একজন প্রতিযোগীর নাম তালহা; যিনি সম্পর্কে ইসলামী সঙ্গীত জগতের কিংবদন্তি পুরুষ শিল্পী মশিউর রহমানের ছোটভাই। শিল্পী মশিউর রহমান সেই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন এবং তালহার বড়ভাই হিসেবে মঞ্চে আমন্ত্রিত  হয়েছিলেন। এ সময় আইয়ুব বাচ্চু তাঁকে একটি গান গাইবার অনুরোধ করেন।    &nb...বাকিটুকু পড়ুন

০ টি মন্তব্য      ১৯৮ বার পঠিত     

বনু কায়নুকার অভিযান এবং ইসলামে নারীর সম্মান...

লিখেছেন Shahmun ২০২১-১০-১০ ১৬:১৩:৪৩

  দ্বিতীয় হিজরির কথা। মদীনায় এক মুসলিম নারী স্বর্ণ কেনা-বেচার জন্য মদীনার বাজারে গেলেন। মদীনার স্বর্ণের ব্যবসা মূলত ইহুদিরাই পরিচালনা করতো।তো সেই মুসলিম নারী এক ইহুদি ব্যবসায়ীর দোকানে গেলেন। দোকানে গিয়ে তিনি স্বর্ণ দেখতে চাইলেন। তখন সেই ইহুদি ব্যবসায়ী আগত মুসলিম নারীকে তার মুখের পর্দা সরাতে বলল। কিন্তু সেই মুসলিম নারী নিজের নেকাব সরাতে অস্বীকৃতি জানায়। সেখানে আরও কয়েকজন ইহুদি উপস্থিত ছিল। তারাও সেই মুসলিম নারীকে নিজের মুখের পর্দা সরানোর জন্য জোর করছিল। কিন্তু সেই মহিলা নিজের সিদ্ধান্তে অ...বাকিটুকু পড়ুন

০ টি মন্তব্য      ৩০৫ বার পঠিত     

শিশুদের প্রতি সদাচরণ ইসলামের শিক্ষা.....

লিখেছেন লাবিব আহসান ২০২১-১০-০৮ ০৫:৩৬:০৪

প্রায়ই অনেককে শিশুদের সঙ্গে বাজে আচরণ করতে দেখি। বিশেষত মসজিদে। অথচ শিশুর প্রতি স্নেহ- ভালোবাসার পাশাপাশি তাদের প্রতি সম্মান প্রদর্শনের গুরুত্ব অপরিসীম। তাদেরকে সম্মান করে কথা বলার অনেক প্রভাব রয়েছে। শিশু যখন সন্মানিতবোধ করে তখন তার মধ্যে আত্মবিশ্বাস তৈরি হয় এবং তারা ভালো কাজে উৎসাহবোধ করে। বড়দের মতো ছোটরাও অন্যের প্রিয় হতে চায় এবং শিশুদের প্রত্যাশা বড়রাও তাদেরকে সম্মান করে কথা বলবে।      রাসূল (স.) শিশুদের প্রতি স্নেহ-ভালোবাসা ও সম্মান প্রদর্শনের বিষয়ে বলেছেন, "আপনারা শিশুদেরক...বাকিটুকু পড়ুন

০ টি মন্তব্য      ২৭২ বার পঠিত     

মাওলানা আব্দুর রহীম ও আইডিএল....

লিখেছেন লাবিব আহসান ২০২১-১০-০২ ০৩:০৮:৪৭

১৯৭৫ সালের মধ্য-আগস্টে বাংলাদেশের রাজনৈতিক অঙ্গনে এক অভাবনীয় পটপরিবর্তন সাধিত হয়। এদিন এক সামরিক অভ্যুত্থানে শেখ মুজিবের সরকার ক্ষমতাচ্যুত হয়। এর কয়েক মাস পর এক পাল্টা-অভ্যুত্থানের মাধ্যমে খালেদ মোশারফ লাইমলাইটে আসেন। কিন্তু তা স্থায়ী হয়নি, বরং সিপাহী-জনতার বিপ্লবের মধ্য দিয়ে সেনাপ্রধান জিয়াউর রহমান ক্ষমতায় এসে ধর্মভিত্তিক রাজনীতির ওপর আরোপিত নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করে নেন। তিনি সংবিধান থেকে ধর্মনিরপেক্ষতা পরিহার করে ‘আল্লাহর প্রতি ঈমান ও আস্থা’কে জাতীয় নীতিরূপে ঘোষণা করলেন।  &n...বাকিটুকু পড়ুন

০ টি মন্তব্য      ২৯০ বার পঠিত     

ইসলামের চোখে প্রোডাক্টিভিটি.....

লিখেছেন লাবিব আহসান ২০২১-০৯-২৬ ১৯:২৬:১৬

ইসলামের 'দুনিয়া বিমুখতা'র ধারণা সম্পর্কে অধিকাংশ মুসলিম একটা বড় ধরণের ভুল বোঝাবুঝির ভিতর দিয়ে গিয়েছে বলে মনে হয়। পরকালকে অগ্রাধিকার দেয়ার ঐশী নির্দেশকে তারা এমনভাবে গ্রহণ করেছে যেন ইসলাম দুনিয়াকে তুচ্ছ-তাচ্ছিল্য করে নিছক তসবি-তাহলীল আর জিকির-আজগারে কাটিয়ে দিতে বলেছে! ফলশ্রুতিতে অধিকাংশ মুসলিমের ব্যাপারে অমুসলমানদের ধারণাই হয়ে গিয়েছে- ওরা আনপ্রোডাক্টিভ, ক্ষ্যাত, দুনিয়া পরিচালনায় নিদারুণ অযোগ্য। আদতে ইসলামের প্রকৃত শিক্ষাটা কি এমন ছিলো?    ইতিহাস ঘাটলে দেখা যায়, ইসলামের প্রাথমিক যুগের...বাকিটুকু পড়ুন

০ টি মন্তব্য      ২৯০ বার পঠিত     

আধুনিক শিক্ষিত ইসলামিক স্কলারদের কথা....

লিখেছেন লাবিব আহসান ২০২১-০৯-২৪ ০৫:৪৬:৫৮

বড় আশ্চর্য এক ব্যাপার লক্ষ্য করছি ইদানীং। সবাই শুধু মিছিলের নেতা হতে চায়, মাঠের নেতা হতে চায়, পড়ার টেবিলে বসার স্বপ্ন দেখে না কেউই। স্কলার হতে চায় না কেউই। অথচ মূল বিপ্লবটা তো এখান থেকেই ঘটবে। প্রশ্ন হলো, আধুনিক শিক্ষিত কেউ ইসলামিক স্কলার হতে পারবে কিনা। জ্ঞান অর্জনের জন্য কোনো ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় আবশ্যক নয়৷ তবে আবশ্যক হল গুরু/শিক্ষক৷ বই পড়ে আপনি কি শিখলেন; ঠিক শিখলেন না ভুল শিখলেন, তা মূল্যায়নের জন্য গুরু আবশ্যক৷      আপনি সাধারণ স্কুল কলেজে পড়াশুনা করে দ্বীনি ইলম শেখার জন্...বাকিটুকু পড়ুন

০ টি মন্তব্য      ২০৭ বার পঠিত     

হালালের প্রশান্তি উপভোগ করুন....

লিখেছেন লাবিব আহসান ২০২১-০৯-২৩ ০১:৫৪:৪৬

আমি যখন সেই তথাকথিত তরুণ দা'য়ী ইল্লাল্লাহর ব্যাপারটি জানলাম, তখন বাস্তবিক অর্থে হতভম্ব না হয়ে পারলাম না। মুহূর্তে বুঝে ফেললাম, বছরের পর বছর ধরে এই ময়দানে এতো দা'য়ীর ওয়াজ নসিহত সত্বেও মানুষের চরিত্রের কোনো পরিবর্তন হচ্ছে না কেন। কেন বক্তার বক্তব্যের প্রভাব পড়ছে না শ্রোতামহলে। ঘাটতি কোথায়। কি সেই গোপন প্রতিবন্ধকতা, যা মানুষের হেদায়াতের পথে বারবার বাঁধা হয়ে দাঁড়াচ্ছে। মনের সমুদ্রে বয়ে গেলো এক অদ্ভূত বেদনার তরঙ্গ।    ঘটনাটি সেই তথাকথিত বক্তার খুব কাছের একজন মানুষের নিকট থেকে শোনা। বিভিন্...বাকিটুকু পড়ুন

০ টি মন্তব্য      ২৪৫ বার পঠিত     

প্রফেসর ডঃ ফুয়াদ সেজগিন, ইসলামী সভ্যতার এক উজ্জ্বল নক্ষত্র...

লিখেছেন কহেন কবি ২০২১-০৯-১৯ ১৫:৪৫:০০

ফুয়াদ সেজগিন, তার নাম শুনলেই যেন আত্মবিশ্বাস জেগে উঠে। তিনি তার সমগ্র জীবনকে ব্যয় করেছেন ইসলামী সভ্যতার শ্রেষ্ঠত্ব প্রমানের জন্য। জীবনের ইচ্ছা ছিল তিনি একজন ইঞ্জিনিয়ার হবেন, এই উদ্দেশ্যে কলেজ জীবন শেষ করে, ইস্তানবুল বিশ্ববিদ্যালয়ে যান। সেখানে যাওয়ার পর তার শিক্ষক Hellmut Ritter এর একটি কনফারেন্সে অংশগ্রহণ করেন। কনফারেন্স থেকে বের হওয়ার পর তিনি সিধান্ত নেন যে, তিনি ইঞ্জিনিয়ারিং না পড়ে সমাজ বিজ্ঞান অনুষদের কোন বিষয়ে পড়বেন। কারণ এই ক্ষেত্রটি অনেক বেশী ফাঁকা এবং এই ক্ষেত্রটিতে করার মতো অনেক কাজ রয়...বাকিটুকু পড়ুন

০ টি মন্তব্য      ২৪৬ বার পঠিত     

নিজের অবস্থা কার সাথে তুলনা করবেন?

লিখেছেন জিবরান ২০২১-০৯-১৩ ২২:২৭:২৮

আলহামদুলিল্লাহ। সকল প্রশংসা আল্লাহর জন্য। যিনি সর্বশক্তিমান, পরাক্রমশালী। যিনি সকল শক্তি এবং ক্ষমতার উৎস। যিনি দুর্দশায় পতিত ব্যক্তির দুআ শুনেন এবং তার খুবই নিকটে থাকেন। যিনি বাতাস এবং মেঘমালার নিয়ন্ত্রক। যিনি বৃষ্টি বর্ষণ করেন। যিনি সুস্পষ্ট ভাষায় আমাদের জন্য একটি বই নাযিল করেছেন। যিনি সাত আসমান এবং পৃথিবীর প্রভু। যিনি আলো দান করেন। কিয়ামত কবে হবে তা একমাত্র তিনিই জানেন। তিনি আমাদের পরিস্থিতি এবং আমাদের প্রয়োজন সম্পর্কে পুরোপুরি জানেন। তিনি হলেন 'আস-সামি এবং আল-বাসির'- যিনি সব শুনেন, সব দেখেন...বাকিটুকু পড়ুন

০ টি মন্তব্য      ৩২৯ বার পঠিত     

 নিউজ আপডেট

 এ সপ্তাহের সর্বাধিক পঠিত পোস্ট

 এ সপ্তাহের সর্বাধিক মন্তব্যকৃত পোস্ট

 আর্কাইভ