অনলাইনে আছেন

  • জন ব্লগার

  • ৩৯ জন ভিজিটর

সকল পোস্ট (ক্রমানুসারে)

গ্রানাডা পতনের কারণ এবং প্রকৃত ইতিহাস...

লিখেছেন Muhammad Sajal ২০২০-০৪-০১ ২০:৪৯:৫২

১৪৯২ সালের ২রা জানুয়ারী গ্রানাডার আমির দ্বাদশ মুহাম্মাদ (আবু আবদুল্লাহ) ফার্ডিন্যান্ড-ইসাবেলার বাহিনীর কাছে আত্মসমর্পণ করেন,প্রধানত দুটো কারনে,এক নম্বর কারন,তাদের খাবার ও রসদ শেষ হয়ে গেছিল,দুই নম্বর কারন,তার আমীর ওমরাহ ও জনগনের মধ্যে প্রচুর পরিমান গাদ্দার ছিল।   সে সময় গ্রানাডার মোট মুসলিম জনসংখ্যা ছিল প্রায় পাচ লাখ বা তার কাছাকাছি।এছাড়া গ্রানাডার কাছাকাছি আলমেরিয়া,মালাগা,আলবেসিন অঞ্চলে প্রচুর মুসলিম বসতি ছিল।সিয়েরা নেভাদা,সিরাদরমিজা ও সিরারোন্দা পার্বত্য অঞ্চল,আল ফাজরা পার্বত্...বাকিটুকু পড়ুন

০ টি মন্তব্য      ৩৫৭ বার পঠিত     

ইসলামী ভ্রাতৃত্বঃ শক্তিশালী এক বাঁধন......

লিখেছেন লাবিব আহসান ২০২০-০৩-২৯ ০৩:৪১:১৩

নিজের প্রিয়তমা জীবনসঙ্গীনিকে ডিভোর্স দিয়ে অপর ভাইয়ের সঙ্গে বিয়ে দিয়ে দেয়ার মতো ত্যাগ স্বীকারের দৃষ্টান্ত সম্ভবত ইসলামই প্রথম দেখাতে পেরেছে। ইসলামের ভিত্তিতে কোনো ভ্রাতৃত্বের বন্ধন গড়ে উঠলে তা কতটা গভীর হওয়া সম্ভব; এ থেকে নিশ্চয়ই সহজে উপলব্ধি করা সম্ভব। মক্কা থেকে হিজরত করে মুহাজিররা যখন মদীনায় চলে গেলেন, তখন তাঁরা ছিলেন সহায়-সম্বলহীন রিক্তহস্ত। তাঁদের মধ্যে যাঁরা স্বচ্ছল ছিলেন, তাঁরাও নিজেদের মালপত্র মক্কা থেকে আনতে পারেন নি।মুহাজিররা যদিও মদীনায় আনসারদের মেহমান ছিলেন, তথাপিও তাঁদের স্থায়ীভাবে ব...বাকিটুকু পড়ুন

০ টি মন্তব্য      ২৯১ বার পঠিত     

ক্রসেড ও মুসলিম দুনিয়ার নিয়তি...

লিখেছেন কহেন কবি ২০২০-০৩-১৫ ১৯:০৫:২৫

  মুসলিম ও ইউরোপিয় সভ্যতার নিয়তি নির্ধারনে ক্রৃসেড (১০৯৫-১৪৯২) ঐতিহাসিক এক গুরুত্বপূর্ণ ঘটনা। ক্রুসেড বিজয় মুসলিম সভ্যতার জন্য আপাত গৌরবের কারণ হলেও এই বিজয় দীর্ঘমেয়াদে মুসলমানদের পশ্চাদপদতার দিকে ঠেলে দিয়েছে। অন্যদিকে ক্রুসেডে পরাজয় ইউরোপিয় সভ্যতার জন্য আপাত গৌরবহানিকর হলেও, এই পরাজয় ইউরোপকে দিয়েছে এগিয়ে যাওয়ার নতুন দিশা। ক্রুসেডে দুই প্রতিপক্ষই লড়াই করেছে ধর্মের নামে। দুই প্রতিপক্ষই যার যার 'সত্য দ্বীন' প্রতিষ্ঠার লড়াইয়ে অবতীর্ণ ছিলো। যার যার পক্ষে যোদ্ধাদের ধর্মের বাণী দিয়ে উজ্জিবিত...বাকিটুকু পড়ুন

০ টি মন্তব্য      ৩৫৩ বার পঠিত     

জগৎশেঠ: শ্রেষ্ঠ ব্যাংকার থেকে দেউলিয়া...

লিখেছেন রূপা ২০২০-০২-০৮ ১৭:১৯:৪৫

ইতিহাসে বিশ্বাসঘাতক হিসেবে মীরজাফরের নাম যতবার উঠে এসেছে, জগৎশেঠের নাম ততবেশি শোনা যায় না। যাদের চক্রান্তের শিকার হয়ে নবাব সিরাজউদ্দৌলা পলাশীর যুদ্ধে পরাজিত হন, তাদের মধ্যে জগৎশেঠ ছিলেন অন্যতম।রাজা বল্লাল সেনের সময় বাংলার স্বর্ণ ব্যাবসায়ীরা একেবারেই ঘরে বসে যায়। ঠিক তখনই বাংলার ব্যাংকিং জগতে মাথা ঢোকানোর সুযোগ পেয়ে যায় বিদেশী শেঠরা।মোঘল আমলে মাড়োয়াররা ভারতীয় উপমহাদেশে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতো। মাড়োয়ারের পালি বাজার ছিল পশ্চিম ভারতের সমুদ্র উপকূল ও উত্তর ভারতের ব্যবসার সংযোগস্থল।এখন থেকেই ই...বাকিটুকু পড়ুন

০ টি মন্তব্য      ৩৪১ বার পঠিত     

সুপার হিরোদের গল্প -ইকরিমা ইবনে আবু জাহল (রা)...

লিখেছেন জিবরান ২০২০-০২-০৩ ০০:৫৯:১২

১ নাহ মক্কায় আর থাকা সম্ভব না। ইকরিমা ইবনে আবু জাহেল পালিয়ে যাচ্ছেন। ঘর দুয়ার স্ত্রী ছেড়ে। লজ্জিত অবস্থায় মাথা নিচু করে পালাচ্ছেন । মুসলমানরা মক্কা বিজয় করে ফেলেছে। অল্প আগে তিনি মুসলমানদের মক্কা বিজয় রুখতে স্বল্প সংখ্যক সৈন্য নিয়ে শেষ প্রতিরোধ গড়ার চেষ্টা করেছিলেন। খালিদ বিন ওয়ালিদের (রা) ছোট্ট সৈন্য বাহিনীর আক্রমণে সেই প্রতিরোধ ভেস্তে গেছে। ইকরিমার বাহিনীর অনেকেই মারা পরেছে। কোন মতে জীবন নিয়ে পালাতে সক্ষম হয়েছেন ইকরিমা ইবনে আবু জাহেল।   যদিও মক্কার কুরাইশরা নবী মুহাম্মাদ (সা) কে আগ...বাকিটুকু পড়ুন

০ টি মন্তব্য      ৬৬৮ বার পঠিত     

বিদেশী সাংবাদিকদের চোখে ১৯৭২--৭৫ এর বাংলাদেশ...

লিখেছেন কহেন কবি ২০২০-০১-২৩ ১৮:৫০:৩৭

আলীমুদ্দিন ছাতা মেরামতের কাজ করে। এ সময়টা তার জন্য ব্যাস্ততার মৌসুম। রোজ বিকেলে বঙ্গোপসাগরের কালো মেঘ পদ্মার উপর দিয়ে ভেসে যায় , আর মানিকগঞ্জে মুষলধারে বৃষ্টি নামে।শহরের প্রধান বাজারের রাস্তায় আলীমুদ্দিন এক পায়ের উপর আর এক পা আড়াআড়িভাবে রেখে বসে ছেঁড়া ছাতা সেলাই করে , জোড়াতালি দেয় এবং ছাতার শিক মেরামত করে। সাইড বিজনেস হিসাবে পুরান তালা মেরামত করে , পুরান চাবিও সরবরাহ করে।এমন মৌসুমেও আলীমুদ্দিন ক্ষুধার্ত। বলল, "যেদিন বেশী কাজ মেলে, সেদিন এক বেলা ভাত খাই। যেদিন তেমন কাজ পাই না সেদিন ভাতের বদলে এ...বাকিটুকু পড়ুন

০ টি মন্তব্য      ৩৪৭ বার পঠিত     

ইতিহাস প্রত্যেক জাতির জন্য দর্পনস্বরূপ...

লিখেছেন কহেন কবি ২০২০-০১-১৪ ২১:২৯:০৭

১৯৮২ সাল। সংবাদমাধ্যমের একটি খবর প্রথম হেডিংয়ে উঠে এল চীন ও জাপানের মুখামুখি অবস্থান। চীন কঠোর ভাষায় হুমকি দিল , জাপানের সাথে সবধরণের সম্পর্ক ছিন্ন করা হবে। আগের করা সমস্ত চুক্তি বাতিল করা হবে। কেননা , চীনের গোয়েন্দারা নাকি খবর পেয়েছে , জাপান স্কুলের ইতিহাস পাঠ্যবইয়ের একটা প্যারা সংশোধন করে নতুন তথ্য যোগ করেছে।একটু পিছনে যেতে হবে। ১৯৪৫ সালের আগস্ট মাসে জাপানের হিরোশিমা ও নাগাসাকিতে পারমানবিক বোমা ফেলা হয়েছিল। আমেরিকা মুহূর্তেই প্রায় পুরাপুরি ধ্বংস করে দিয়েছিল দুইটা প্রাণবন্ত তরতাজা শহর...বাকিটুকু পড়ুন

০ টি মন্তব্য      ৪৭১ বার পঠিত     

কুরআন কি মানবরচিত গ্রন্থ...?

লিখেছেন রূপা ২০২০-০১-১৪ ০২:১৭:৫৬

কোন ভূমিকায় না গিয়ে সহজ কথায় আল কুরআনের একটি বিষ্ময়কর অথচ অপ্রচলিত তথ্য আপনাদের সামনে হাজির করছি। যা থেকে আপনি নিশ্চয়ই বুঝতে পারবেন কোরআনের রচয়িতা কে!পাঠক, আপনি হয়তো জানেন পৃথিবীতে মৌলিক রং তিনটি -লাল সবুজ নীল। এই তিনটির সঠিক সমন্বয়ে অন্য সকল রং তৈরি করা সম্ভব। এর পর প্রাকৃতিক বা বাস্তবিক রং হলো সাতটি। যেগুলো কোন প্রকার মানবীয় উদ্যোগ ছাড়া প্রাকৃতিক ভাবে আমাদের চোখে পড়ে- বেগুনি- নীল -আসমানী নীল-সবুজ-হলুদ-কমলা-লাল। জি, রংধনুর সাত রং। এগুলোই প্রাকৃতিক সাত রং। আমাদের চোখের দেখা অন্যান্য সকল রং গুল...বাকিটুকু পড়ুন

০ টি মন্তব্য      ৩২২ বার পঠিত     

ইতিহাসকে ইতিহাসের মত জানার চেষ্টা থাকাটা জরুরী।

লিখেছেন Muhammad Sajal ২০১৯-১২-৩০ ১৯:০২:৪৫

আমি যখন অটোমান সিরিজটা শুরু করি,তখন ভেবেছিলাম একশো পোস্টের ভেতর শেষ করে দেবো এই সিরিজ,পরবর্তীতে তাদের বিশাল,আকর্ষনীয় ইতিহাসের ব্যাপকতা,ও কলোনিয়াল শক্তিগুলোর সাথে তাদের সংঘাত,উম্মাহর জন্য তাদের ত্যাগ এবং পতন যুগে বিলাসী জীবন ও ইউরোপীয় রেনেসাঁ পরবর্তী দর্শনের আধিপত্যের শিকার হয়ে পড়ার মাধ্যমে ধীরে ধীরে ক্ষয়ে যাওয়া অটোমানদদের আমার কাছে মনে হয়েছিল মুসলিম উম্মাহর ইতিহাস নিয়ে পর্যালোচনার একটা চমৎকার স্পেসিমেন। অটোমানদের ইতিহাস পড়তে গিয়ে আমার কাছে প্রথমেই যা প্রতিভাত হয় তা হল নিরপেক্ষ ইতি...বাকিটুকু পড়ুন

০ টি মন্তব্য      ৪০৭ বার পঠিত     

কর্নেল ওসমানীর বিরুদ্ধ ভারতীয় আর আওয়ামী নেতাদের ক্ষোভ ছিল কেন?

লিখেছেন রূপা ২০১৯-১১-২৬ ২১:২০:২৭

যুদ্ধের প্রথম থেকেই কর্নেল ওসমানীর অবস্থান ছিল যেহেতু এই যুদ্ধ বাংলাদেশীদের তাই এই যুদ্ধ পরিচালনার দায়িত্বে থাকবে মুক্তি ফৌজ কম্যান্ড আর মুজিব নগর সরকার। ওসমানীর এই আপোষহীন মতবাদের কারনে তাকে বারংবার মুজিবনগর সরকার আর ভারতীয় কম্যান্ডের সাথে তিক্ত অবস্থার মুখোমুখি হতে হয়। ৭১ এর জুলাই মাসে এক ক্যাবিনেট মিটিঙে ওসমানী তাজউদ্দীনকে বলেন যদি ভারতীয় কর্তৃপক্ষ , আর্মি, গোয়েন্দা সংস্থা আমাদের স্বাধীনতা যুদ্ধে তাদের অবাঞ্ছিত আর বাড়াবাড়ি ধরনের হস্তক্ষেপ বন্ধ না করে তাহলে তিনি নামকা ওয়াস্তের কম্যান্ডার-ইন...বাকিটুকু পড়ুন

০ টি মন্তব্য      ৫৫১ বার পঠিত     

 নিউজ আপডেট

 এ সপ্তাহের সর্বাধিক পঠিত পোস্ট

 এ সপ্তাহের সর্বাধিক মন্তব্যকৃত পোস্ট

 আর্কাইভ