অনলাইনে আছেন

  • জন ব্লগার

  • ৩৭ জন ভিজিটর

সকল পোস্ট (ক্রমানুসারে)

বাণিজ্য ঘাটতি থেকে আফিম যুদ্ধ...

লিখেছেন জিবরান ২০২০-০৮-১৩ ১৯:০৬:৩৬

চীনের সাথে বর্তমানে পাশ্চাত্যের যে বাণিজ্য-ঘাটতি, তা শেষপর্যন্ত যুদ্ধে গড়াতে পারে, যেমনটি হয়েছিলো ঊনিশ শতকে চীন ও ব্রিটেইনের মধ্যে। সে-যুদ্ধে ব্রিটেইন বাংলাকেও ব্যবহার করেছিলো তার উপনিবেশ হিসেবে।চীনের বিলাস সামগ্রী - বিশেষতঃ সিল্ক, পর্সোলিন ও চা - বিদেশে রফতানি হওয়ার ইতিহাস অতি প্রাচীন। সমুদ্রে আরব আধিপত্য ইউরোপীয়দের কাছে পরাস্ত হলে, চীনের সাথে আন্তর্জাতিক বাণিজ্যের নিয়ন্ত্রণের শীর্ষে চলে আসে বাংলা দখলকারী প্রবল প্রতিপত্তিশালী ব্রিটিশ ইষ্ট ইণ্ডিয়া কোম্পানী।আঠারো শতকের শেষের দিকে চীনের সাথে ব্র...বাকিটুকু পড়ুন

০ টি মন্তব্য      ৬৩১ বার পঠিত     

বাপ-বেটার করুণ পরিণতি...

লিখেছেন রূপা ২০২০-০৮-১০ ১৭:৩৫:০৮

সামারকান্দ ও বুখারার পর সুলতান মুহাম্মদ ও স্বীয়পুত্র উভয়েই বুঝতে পারলেন যুদ্ধে জয়পাওয়া প্রায় অসম্ভব। তাই তিনি পশ্চিমে পালায়ন করলেন এবং একই সাথে জালালুদ্দিন ফারগানা থেকে আফগানিস্তানের আরও গভীরে কাবুলে পালিয়ে যান। চেঙ্গিস খান সুবোতাই ও জেবেকে আদেশ দিল যেখান থেকে হোক, যেভাবেই হোক শাহকে জীবিত কিংবা মৃত ধরে আনতে। চতুর দুই সেনাপতি ছোটল এবার শাহের পিছনে।অনেক ঐতিহাসিক মনে করেন এই যুদ্ধে পরাজয়ের সম্পূর্ণ দায়ভার বুঝি শাহ ও তার ছেলের ছিল। শাহ নির্দোষ ছিলনা, সে অবশ্যই বিভিন্ন দৃষ্টিকোণ থেকে অপরাধী ছিল কিন...বাকিটুকু পড়ুন

০ টি মন্তব্য      ৪৫৩ বার পঠিত     

মুসলিম সাম্রাজ্যে মঙ্গল আগ্রাসন...

লিখেছেন রূপা ২০২০-০৮-১০ ১৭:৩৩:৫৮

যেহেতু খাওয়ারিজম সাম্রাজ্যের ভিতর দিয়েই সিল্করোড ইউরোপ পর্যন্ত গিয়েছে তাই এ রোডের সুবিধা রক্ষার জন্য হলেও শাহের সাথে ভাল সম্পর্ক রাখা দরকার। তাই বিভিন্ন সহযোগিতামূলক চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছিল। গত পর্বেই বলেছি অর্থনৈতিক ও চেঙ্গিসের সামরিক নীতির জন্যে হলেও মুসলিম সাম্রাজ্য বড্ড প্রয়োজন আর পিছন থেকে ইহুদী ও ক্রসেডারদের অপতৎপরতা ছিলই। তাই সার্বিক দিক বিবেচনা করে সিদ্ধান্ত নিয়েছে মুসলিম সাম্রাজ্যে হামলা চালাবে। কিন্তু চুক্তিগুলোই করেছে সর্বনাশ। এমন কিছু দরকার যে কারণে চুক্তিগুলো ছিড়ে ফেলা যায়।অপরদিক...বাকিটুকু পড়ুন

০ টি মন্তব্য      ৫৬৯ বার পঠিত     

মুসলিম সীমান্তে মঙ্গোল পদধ্বনি...

লিখেছেন রূপা ২০২০-০৮-১০ ১৭:৩২:৪৩

আজকের পর্বটি শুধুমাত্র মঙ্গোল ইতিহাস নয় সাথে আরও অনেক কিছুই বিশেষ করে ইতিহাসের সাথে বর্তমানের মিল রেখে কিছু কথা বলার চেষ্টা করেছি। তাই অনেকের কাছেই ভিন্ন ইমেজে পোস্টের পোস্টমর্টেম হতেই পারে। তবে পাঠকদের কাছে অনুরোধ আপনারা আগে আমার কথাগুলো ভালভাবে পড়ে একটু চিন্তা করে নিবেন।১২১৭ সাল, চেঙ্গিস খান চীনে নিজের ক্ষমতা পাকাপোক্ত করেই পশ্চিম দুনিয়া দখলের চিন্তায় মগ্ন হল। অনেক ঐতিহাসিক লিখেছেন, মঙ্গোলরা/ তাতাররা বাগদাদকে কেন্দ্র করেই হামলা চালিয়েছিল কারণ তারাও অন্যান্যদের মত ইসলাম বিদ্বেষী ছিল। কথাটা আম...বাকিটুকু পড়ুন

০ টি মন্তব্য      ৩৪৬ বার পঠিত     

পশ্চিমে মঙ্গোল অভিযান...

লিখেছেন রূপা ২০২০-০৮-১০ ১৭:৩১:০৮

চেঙ্গিসীয় রাজত্য কায়েমের পর সকল স্থানীয় গোত্রগুলো তার আনুগত্য স্বীকার করে নিলেও পার্শবর্তী নেইমেন গোত্র এই অন্যায় দাবীর বিরোধীতা করে বসে। রাজার আদেশ শিরোধার্য না মেনে বরং স্পর্ধা দেখিয়েছে, নেইমেনদের অবশ্যই এর মূল্য দিতে হবে। যেই কথা সেই কাজ। ১২০৫ সালে চেঙ্গিস খান নেইমেনদের উপর ঝাঁপিয়ে পরে তাদের প্রথাগত ধ্বংসলীলা চালায়। এতে রাজা মারা গেলেও যুবরাজ কুচলুগ আরও পশ্চিমে কারা ইরতিসের দিকে সরে আসে।রাজ্য হারানোর বদলাতো নিতেই হবে, কয়েক বছরে সেনা সংগ্রহ করে যুবরাজ কুচলুগ ১২০৮ সালে সেতুছুর ময়দানে চেঙ...বাকিটুকু পড়ুন

০ টি মন্তব্য      ৪৩৯ বার পঠিত     

মঙ্গোলিয়ার পূনর্গঠন ও চীন আক্রমণ...

লিখেছেন রূপা ২০২০-০৮-১০ ১৭:২৯:৪৮

অনেকে লিখেছেন কিন আবার অনেকে জিন, যেহেতু জিনের সংখ্যাই বেশি তাই জিন ডাইনেষ্টিই আমি লিখব।মঙ্গোলিয়া অঞ্চলে চেঙ্গিস খানের আঞ্চলিক আধিপত্য দ্রুতই বৃদ্ধি পেতে থাকল। প্রতিদ্বন্দ্বী গোত্রগুলো দেখল জামুইকার পর তাদের আশির্বাদ দেওয়ার মত আর কেও নেই তাই অধিকাংশই চেঙ্গিস খানের আধিপত্য মেনে নিল আর যারা মানতে অস্বীকার করল তারা দেখতে পেল মানব ইতিহাসের হিংস্রতা কাকে বলে। মনে রাখতে হবে, নেতা হিসেবে খাগান মঙ্গোলের গোত্রগুলো ব্যাতীত অন্যেরা ভালবাসার চাইতে ভয় কিংবা ভবিষ্যৎ প্রাপ্তির আশায় তার দলে যোগদান করেছিল।চেঙ্...বাকিটুকু পড়ুন

০ টি মন্তব্য      ৮৮০ বার পঠিত     

মঙ্গলদের উত্থান থেকে চেঙ্গিস খান...

লিখেছেন রূপা ২০২০-০৮-১০ ১৭:২৮:২৩

উত্তরে ঠান্ডা সাইবেরিয়া, দক্ষিণে মাথা উঁচু করে দাঁড়িয়ে আছে চীনের মহা প্রাচীর। একদিকে পামির মালভূমি আর অন্য পাশে দূরে রয়েছে সাগর। চারদিকে পাহাড়, চীন সিমান্তের গোবি নামক বালির সমুদ্রের ওপাশে ভাগ্যের অন্বেষণে ছুটে চলা কিছু মানুষ ৯০৭ খৃষ্টাব্দে মূলত পশু পালনের মাধ্যমেই যাযাবর জীবন বেঁছে নেয়। ধারণা করা হয় এরা মূলত চীনের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে রাজনৈতিক কিংবা অর্থনৈতিক কারণে পালিয়ে আসা ভাগ্যহত মানুষ।জায়গাটার নামকরন করা হয় খিতান লিয়াও। পশু পালনকারী সমাজগুলোর মতই খুব দ্রুতই এই খিতানের লোকজন সংখ্যায় বৃদ্ধ...বাকিটুকু পড়ুন

০ টি মন্তব্য      ৪১৮ বার পঠিত     

অলক্ষ্যে থাকা মহাবীর বারকি খান...

লিখেছেন জিবরান ২০২০-০৮-০৯ ০০:০৬:১৮

চেঙ্গিস খানের যে কয়জন ছেলে ছিল তাদের মাঝে জসি ছিল কিছুটা উদারপন্থী কিন্তু যুদ্ধ ক্ষেত্রে অদমনীয়। সর্বপ্রথম মুসলিম বিশ্বে আক্রমনের সময় জসিকে দায়িত্ব দেয়া হয়েছিল তিয়েনশানের ফারগানায় জালাল উদ্দিনকে আটকে রাখতে যেন পিছন থেকে মোঙ্গল আর্মির উপর ঝাপিয়ে পরতে না পারে। কাজ সুন্দরভাবে সমাধার পর জসিকে উপহার দেয়া হয় বুখারা। চেঙ্গিস খানের খুনি আদেশ অমান্য করে জসি বুখারাবাসীর প্রতি দয়াদ্র আচরণ করায় তাকে বুখারার দায়িত্ব থেকে সরিয়ে দিয়ে ওগেদাইকে দিয়ে চেঙ্গিসখান বুখারায় রক্তগঙ্গা বইয়ে দেয়। সে দিনই মোটামুটি ঠিক হ...বাকিটুকু পড়ুন

০ টি মন্তব্য      ৯৮১ বার পঠিত     

ইখতিয়ার উদ্দিন মুহাম্মদ বখতিয়ার খলজির জীবন ইতিহাস...

লিখেছেন কহেন কবি ২০২০-০৮-০৪ ১৭:৫৯:৪০

০১ইখতিয়ার উদ্দিন মুহাম্মদ বখতিয়ার খলজি (-১২০৬)যিনি এই ভূখন্ড়ে গোড়াপত্তন করেছিলেন বিশাল একমুসলিম সালাতানাতের (১২০৩-১৮৫৭)এই মহান মুজাহিদের বাল্যকাল সম্বন্ধে আর্তুগুল গাজীর মতই তেমন কিছু জানা যায়নি।তবে যে সময় মালিক খলজী যুদ্ধের ময়দানে সময় কাটাচ্ছে, আর্তুগুল গাজী তখন নিতান্তই বালক। তুর্কিদের খলজী সম্প্রদায়ভুক্ত মুহাম্মদ বিন বখতিয়ার খলজী আফগানের দশতই মার্গোতে জন্ম নেন। গজনী সুলতান গিয়াসউদ্দিন উদ্দিন মুহাম্মাদের আমলে তার ছোট ভাই মুইজ উদ্দীন মুহাম্মদ ঘুরী দিল্লি জয় করে কুতুবউদ্দিন আইবেককে শাসক নিযুক্...বাকিটুকু পড়ুন

০ টি মন্তব্য      ৬০৬ বার পঠিত     

সম্রাট আওরঙ্গজেব কি হিন্দু বিদ্বেষী শাসক ছিলেন?

লিখেছেন লাবিব আহসান ২০২০-০৭-৩১ ২০:৫৫:১০

আজকের এই দিনে ৬ষ্ঠ মোঘল সম্রাট হিসেবে সিংহাসনে আরোহন করেন আওরঙ্গজেব। সাধারণ মানুষের মধ্যে আওরঙ্গজেবের ইমেজ হলো একজন ধর্মীয় গোঁড়া ব্যক্তি হিসেবে, যিনি হিন্দুদের ঘৃণা করতেন আর যিনি নিজের রাজনৈতিক লক্ষ্য অর্জনে এমনকি নিজের বড় ভাই দারা শিকোহ'কে পর্যন্ত রেহাই দেননি। আর তিনিই সেই ব্যক্তি যিনি বৃদ্ধ পিতাকে আগ্রার একটি দুর্গে তাঁর জীবনের শেষ সাড়ে সাত বছর বন্দী করে রেখেছিলেন। সম্প্রতি পাকিস্তানী নাট্যকার শাহীদ নাদীম লিখেছেন যে, ভারত ভাগের বীজ সত্যিকার অর্থে সেদিনই বপন করা হয়েছিল, যেদিন আওরঙ্গজেব তাঁ...বাকিটুকু পড়ুন

০ টি মন্তব্য      ৩১৩ বার পঠিত     

 নিউজ আপডেট

 এ সপ্তাহের সর্বাধিক পঠিত পোস্ট

 এ সপ্তাহের সর্বাধিক মন্তব্যকৃত পোস্ট

 আর্কাইভ