অনলাইনে আছেন

  • জন ব্লগার

  • ৪৩ জন ভিজিটর

সকল পোস্ট (ক্রমানুসারে)

পহেলা বৈশাখ ও আমাদের সংস্কৃতিঃ একটি পর্যালোচনা।

লিখেছেন কহেন কবি ২০১৯-০৪-১৩ ২২:১৩:৪২

পহেলা বৈশাখকে বলা হয় বাঙালী জাতির সর্বজনীন উৎসব। এটি বাঙালীর আবহমানকাল তথা হাজার বছরের শাশ্বত ঐতিহ্য। এ জাতীয় অনেক অভিধা দিয়ে এটিকে মহিমান্বিত করার চেষ্টা চলছে। মূলত এ সবই হচ্ছে জঘন্য মিথ্যাচার। ইতিহাসের ভয়াবহ বিকৃতি। সত্যের মারাত্মক অপলাপ। উদ্দেশ্য হচ্ছে জাতিকে ধ্যান-ধারণা ও সংস্কৃতিতে পৌত্তলিক বানানো। কিংবা পৌত্তলিকদের সেবাদাস বানানো। এগুলো যে কত বড় মিথ্যা, তা নিম্নের আলোচনা থেকে প্রমাণিত হবে। বাংলা সনের জন্মকথা: মোগল সম্রাট আকবর বাংলা সনের প্রবর্তক। রাজ্যের সব কাজ হিজরি সালের ওপর ভিত্ত...বাকিটুকু পড়ুন

০ টি মন্তব্য      ৫৬২ বার পঠিত     

ইস্তানবুলের বিজয় এবং মুসলিম উম্মাহর করনীয়...

লিখেছেন ইবনাত ২০১৯-০৩-৩০ ১৭:৫১:৪৫

আজ নতুন একটি যুগের এবং নতুন একটি বিজয়ের প্রয়োজন। সমগ্র মানবতা আজ অধীর আগ্রহে যার অপেক্ষা করছে। নতুন একটি শান্তিময় দুনিয়া গঠন করার জন্য আমাদের এই মুসলিম জাতি পুনরায় নেতৃত্ব দিবে। সম্মানিত একটি জাতির এবং সম্মানিত একটি ইতিহাসের উত্তরাধিকারীগণ এই বিজয়ের পতাকাবাহী হিসাবে কাজ করবে। ইস্তানবুল বিজয়ের খুব বেশী আগে নয় মাত্র ৫০ বছর পূর্বে ১৪০০ সালের শুরুর দিকে তৈমুর লং যখন আনাতলিয়াতে (Anatoliya) আক্রমণ করেছিল তখন সবাই ভেবেছিল যে- সব কিছুই ধ্বংস হয়ে গিয়েছে। মুসলিম বিশ্ব অন্যতম বড় এক দুর্দশায় নিপতিত হয়েছি...বাকিটুকু পড়ুন

০ টি মন্তব্য      ৪৯৩ বার পঠিত     

বাগদাদের সরকারী আলেম ও জাতীর নৃশংস পরিণতি...

লিখেছেন Nazrul Islam Tipu ২০১৯-০৩-২৫ ১৫:৫১:৩৯

রাসুল (সা) ও সাহাবিদের জমানা শেষ হবার পরই প্রতিটি সরকারের আমলে সরকারী আলেমের চাহিদা বরাবরই ছিল। হাজারো বাধা-বিপত্তি পেরিয়ে, তাদের বিপক্ষেও আরেকটি আলেম শ্রেণী কথা বলেছেন। জ্ঞান বিজ্ঞানের শীর্ষে থাকা তদানীন্তন বাগদাদের একটি করুন চিত্র অঙ্কন করব। - মানুষদেরকে অন্যায়ভাবে শাসন করার জন্যই তারা খলিফা খেতাব দখল করেছিল- তাদের শাসনের সাথে ইসলামের প্রথম চার খলিফার শাসনের কোন মিলই খুঁজে পাওয়া যেত না। - তাদের জন্য থাকত একদল আলেম, যারা শাসকের হয়ে তাদের পক্ষে রায় দিত।- এমন এডজাষ্টেবল ফতওয়া তারা দিতেন য...বাকিটুকু পড়ুন

০ টি মন্তব্য      ৪৯৫ বার পঠিত     

পতিতা, শরাব আর সুলতান মুরাদ...

লিখেছেন Muhammad Sajal ২০১৯-০২-১৩ ২০:১৭:১৩

অটোমান সাম্রাজ্যের সুলতান তিনি। সুলতান মুরাদ প্রায়শয়ই ছদ্মবেশে তার রাজ্যের লোকেদের অবস্থা পর্যবেক্ষণ করতে বের হতেন। এক সন্ধ্যায় তিনি নিজে বিশেষ ভালো বোধ করছিলেন না বিধায় নিরাপত্তাবাহিনীর প্রধানকে তলব করলেন তার সঙ্গী হতে। ঘুরতে ঘুরতে তারা এক জনবহুল জায়গায় এসে দেখলেন, এক লোক রাস্তায় পড়ে আছে। সুলতান লাঠি দিয়ে খোঁচা মেরে বুঝতে পারলেন লোকটি মৃত, অথচ চারপাশে মানুষে গিজগিজ করলেও কারও কোনো ভ্রুক্ষেপ ছিল না বিষয়টি নিয়ে। সুলতান আশেপাশের লোকজনদের ডাকলেন। তারা এগিয়ে এলো। কিন্তু ছদ্মবেশে থাকায় কেউই চিনতে...বাকিটুকু পড়ুন

০ টি মন্তব্য      ৪২৪ বার পঠিত     

ইতিহাস পড়তে হবে কেন?

লিখেছেন শাহমুন নাকীব ফারাবী ২০১৯-০২-০৫ ২৩:১৪:৪৮

গতকাল নতুন একজন মানুষের সাথে পরিচয় হল। আমি সাধারণত নতুন মানুষের সাথে তেমন একটা মিশতে পারি না। হয়তো কিছুটা লজ্জা কিংবা সংকোচ কাজ করে।   বাদাম খেতে খেতে সে জিজ্ঞেস করলো, ‘আপনার পছন্দের সাবজেক্ট কী?’ জবাবে বললাম, ‘ইতিহাস!’ সে কিছুটা অবাক হয়ে বলল, ‘ইতিহাস আমাকে একদমই টানে না! এসব ইতিহাস পড়ে কী লাভ! খামোখা সময় নষ্ট।’   তার একথা শুনে আর চুপ থাকতে পারলাম না। খানিকটা গায়ে পড়েই জ্ঞান ফলানো শুরু করলাম। তাকে বললাম, ‘এই যে...বাকিটুকু পড়ুন

০ টি মন্তব্য      ৩৮৯ বার পঠিত     

বাংলার মুসলমান - চন্ডাল বনাম অভিবাসী (১ম পর্ব)

লিখেছেন Sabina Ahmed ২০১৯-০২-০৩ ২১:০৯:৪২

ব্রিটিশ শাসনামলে, ১৮৭২ খ্রিষ্টাব্দের মাঝেই ইংরেজ আর হিন্দুরা যেই তত্ত্ব মোটামুটি প্রতিষ্ঠিত করে ফেলেছিল তা হচ্ছে ভারত হিন্দু প্রধান দেশ, যত মুসলমান শাসক ভারত শাসন করেছে তারা বহিরাগত, মুসলমান শাসকেরা এই দেশে হিন্দুদেরকে তলোয়ারের জোরে মুসলমান বানিয়েছে, এবং এদেশে মুসলমানদের সংখ্যা আসলে নগন্য। আসল সত্য হচ্ছে, ১৮৭২ সাল নয় বরং মুঘল শাসনামলের মাঝামাঝি থেকেই, অনেক ঐতিহাসিকের মতে মুঘল সম্রাট আকবরের সময়ের মাঝেই ভারতের সব অঞ্চলে হিন্দুরা সংখ্যাগরিষ্ঠ ছিল না। ভারতের বেশীরভাগ মুসলমান শাসক সরাসরি বাইরে থেক...বাকিটুকু পড়ুন

০ টি মন্তব্য      ৭৩৫ বার পঠিত     

ইতিহাসে আফগানরা কেন অজেয়?

লিখেছেন অদ্রি হাসান ২০১৯-০২-০৩ ১৯:০৭:০৬

“People who do not accept inferiority to anyone can never be colonized.”ইমরান খান অক্সফোর্ডে ইউনিয়নে জঙ্গিবাদ, পাকিস্তান ও আফগানিস্তানের উপজাতী এলাকায় সন্ত্রাসবাদ নিয়ে তাঁর অবস্থান বিষয়ে জিজ্ঞাসিত হলে খুব সুন্দর কিছু কথা বলেন। তিনি বলেন, ২০০৪ সালে উপজাতী এলাকায় পাকিস্তানের সৈন্য প্রেরণ ছিল জলাশয় তথা চোরাবালিতে পতিত হওয়ার মত। জেনারেল মোশারফ যদি উপজাতীয় এলাকার ইতিহাস জানত তবে সে তা করত না; কারণ বিশাল প্রতিপত্তিশালী মোঘল সাম্রাজ্য ৬২ বছর উপজাতীয় এলাকায় যুদ্ধ করে জিততে পারেনি, পরে তার স...বাকিটুকু পড়ুন

০ টি মন্তব্য      ৩৪৭ বার পঠিত     

 নিউজ আপডেট

 এ সপ্তাহের সর্বাধিক পঠিত পোস্ট

 এ সপ্তাহের সর্বাধিক মন্তব্যকৃত পোস্ট

 আর্কাইভ