অনলাইনে আছেন

  • জন ব্লগার

  • ১৯ জন ভিজিটর

সমালোচনা সহ্য করতে জানাটা একটা যোগ্যতা...

লিখেছেন লাবিব আহসান রবিবার ১৮ জুলাই ২০২১

নিজের একটা মস্ত বড় সীমাবদ্ধতা আমি আবিষ্কার করলাম। দেখা গেলো, আমি কোনোভাবেও নিজের সমালোচনা সহ্য করতে পারি না। নার্ভাস হয়ে পড়ি। নিজের উপর থেকে আত্মবিশ্বাস কমে আসে। এলোমেলো হয়ে যাই। অথচ

জীবনে চলার পথে সমালোচনা থাকবেই। কিন্তু এ সমালোচনা সহ্য করে কিংবা কখনো কখনো তা ভালোভাবে গ্রহণ করেই সামনে এগিয়ে যেতে হবে। আর এক্ষেত্রে যে কোনো সংঘাত এড়িয়ে যাওয়া অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। 

 

 

এ লেখায় রয়েছে তার কয়েকটি উপায়। এক প্রতিবেদনে বিষয়টি জানিয়েছে ফোর্বস। এগুলো হলোঃ

 

১. দৃষ্টিভঙ্গি গ্রহণ করুন সমালোচিত হওয়া কোনো সহজ বিষয় নয়। বহু মানুষই সমালোচনার মাধ্যমে নিজের মতামত প্রকাশ করে। আর এ বিষয়টি আপনার মনমতো হতে পারে নাও হতে পারে। কিন্তু এটি তার দৃষ্টিভঙ্গি, এ বিষয়টি মনে রাখা উচিত। প্রতিটি কাজের ক্ষেত্রই এখন বহুধরনের মানুষে পরিপূর্ণ। এখানে নানা মানুষ নানাধরনের বুদ্ধি নিয়ে আসবেই। আর এ ভিন্নধরনের বিষয়গুলো সঠিকভাবে গ্রহণ করতে পারলে তা ব্যবহার করে অনেকদূর এগিয়ে যাওয়া সম্ভব। তাই সমালোচনাকে নেতিবাচক অর্থে নয় বরং ভিন্ন ধরনের দৃষ্টিভঙ্গি হিসেবে গ্রহণ করুন এবং তা থেকে আইডিয়া নিন। ভবিষ্যতে কিভাবে এ আইডিয়া কাজে লাগানো যায়, সে বিষয়টি চিন্তা করুন। 

 

 

২. শান্ত থাকুন সমালোচনা শুনলেই অনেকের মাথা গরম হয়ে যায়। আর এ কারণে সমালোচনা থেকে কোনো ভালো বিষয় গ্রহণ করার ক্ষমতা হারাতে হয়। এ বিষয়টি খুবই ক্ষতিকর হয়ে দাঁড়ায়। এক্ষেত্রে আপনার শিখে নেওয়া উচিত যে সমালোচনা শুনলেও কিভাবে নিজেকে শান্ত রাখা যায়। মাথা গরম স্বভাব যাদের, তাদের ক্ষেত্রে এ বিষয়টি মোটেই সহজ নয়। কিন্তু চেষ্টা করলেই তা আয়ত্ব করা যায়। যে কোনো সমালোচনাকেই ঠাণ্ডা মাথায় গ্রহণ করা উচিত। এক্ষেত্রে সমালোচনার বিষয়টি যদি সঠিক না হয় তাহলে তা ঠাণ্ডা মাথায় বুঝিয়ে বলা যেতে পারে। এছাড়া বিষয়টি পরিস্থিতির ওপর নির্ভর করে নিজ বুদ্ধিমত্তা ব্যবহার করে এড়িয়ে যাওয়া যেতে পারে। 

 

 

 

৩. কিছু গ্রহণ করুন, কিছু ত্যাগ করুন সমালোচনা হলেই যে আপনার সম্পূর্ণ বিষয়টি গ্রহণ করতে হবে কিংবা সম্পূর্ণ বিষয়টি ত্যাগ করতে হবে, এমন নয়। সমালোচনাকে ভালোভাবে পর্যালোচনা করুন। এর যে অংশটি আপনার পক্ষে গ্রহণ করা লাভজনক, তা গ্রহণ করুন। যে অংশ অপ্রয়োজনীয় মনে হবে তা ত্যাগ করুন। এভাবে সমালোচনা থেকে ভালো বিষয় গ্রহণ করতে পারবেন। 

 

 

৪. ইতিবাচক দৃষ্টিভঙ্গি সমালোচনাকে ইতিবাচক দৃষ্টিভঙ্গিতে গ্রহণ করতে হবে। সমালোচনা বাজে বিষয়, অনেকে প্রথমেই এমন ধারণা করেন। যদিও বিষয়টি মোটেই উচিত নয়। এক্ষেত্রে আপনার সহকর্মী, গ্রাহক কিংবা বস যেই সমালোচনা করেন না কেন, তার সে সমালোচনার কারণ অনুসন্ধান করুন। এটি আপনার সমস্যাটির মাধ্যমে থেকে ইতিবাচক দৃষ্টিভঙ্গি গড়তে সহায়তা করবে। 

 

 

৫. নিজের প্রতি সৎ থাকুন কোনো একটি বিষয়ে সমালোচনা আসলেই তা যে সঠিক কিংবা সঠিক নয় এমন বিষয়ে সিদ্ধান্ত গ্রহণ থেকে বিরত থাকুন। প্রাথমিকভাবে বিষয়টি ভালোভাবে গ্রহণ করুন। এরপর তা বিশ্লেষণ করার ক্ষেত্রে নিজের প্রতি সৎ থাকুন। সমালোচনার বিষয়টি যদি সঠিক থাকে তাহলে তা ঠিক করুন। সঠিক না হলে সে বিষয়টি নিয়ে কোনোকিছু না করলেও চলবে।


সমালোচনা জীবনাচরণ
০ টি মন্তব্য      ২৭৮ বার পঠিত         

লেখাটি শেয়ার করতে চাইলে: