অনলাইনে আছেন

  • জন ব্লগার

  • ৩৭ জন ভিজিটর

বর্তমান সময়ের মুসলমানদের মধ্যে পর্যাপ্ত ‘আকল’ দেখা যায় না

লিখেছেন কহেন কবি মঙ্গলবার ১৯ মার্চ ২০১৯

কোর'আনের প্রচুর আয়াতে মানুষকে 'আকল' ব্যবহার করার কথা বলা হয়েছে। 'আকল' শব্দের সঠিক বাংলা অর্থ হলো যুক্তি।

আরবি ভাষায় আকল শব্দের অর্থ হলো একটি জিনিসের সাথে অন্য একটি জিনিসকে যুক্ত করা। যেমন, আরবি ভাষায় বলা হয় 'আকালা দাব্বাহ' (عَقَلَ الدَّابَّةَ), মানে পশুটিকে বাঁধলো।

কোনো একটি তথ্যকে অন্য একটি তথ্যের সাথে যুক্ত করাকে বাংলায় যুক্তি বলা হয়, এবং আরবিতে তাকে আকল বলা হয়।

কোর'আনে আকল শব্দটিকে কখনো ইসেম বা বিশেষ্য পদ আকারে ব্যবহার করা হয়নি, বরং সবসময় আকল শব্দটিকে ফেল বা ক্রিয়াপদ হিসাবে ব্যবহার করা হয়েছে। কারণ, আকল মানেই একটি তথ্যের সাথে অন্য একটি তথ্যকে যুক্ত করা।

আমরা অনেক সময় বলি, ছেলেটির আকল আছে, মানে, ছেলেটির যুক্তি আছে। কথাটা ভুল।

যদি বলি, ছেলেটির কথায় যুক্তি আছে, তাহলে ঠিক আছে। কেননা এর মানে হলো, ছেলেটি যে কথা বলেছে, সে কথায় একাধিক তথ্যকে সঠিকভাবে যুক্ত করতে পেরেছে।

সে যাই হোক, মূল কথায় আসি। কোর'আনের প্রচুর আয়াতে আকল ব্যবহার করার কথা বলা হয়েছে। এর মানে একাধিক তথ্যকে যুক্ত করে ভিন্ন তথ্য হাজির করার কথা বলা হয়েছে। অথচ, মুসলিমরা এখন সবচেয়ে কম ব্যবহার করেন যে জিনিসটা, তা হলো আকল বা যুক্তি।


আকল ইসলাম
০ টি মন্তব্য      ৪০৭ বার পঠিত         

লেখাটি শেয়ার করতে চাইলে: