অনলাইনে আছেন

  • জন ব্লগার

  • ২৪ জন ভিজিটর

নোটিশ বোর্ড

বাংলাদেশে মোসাদ...

লিখেছেন আফগানী ২০২২-০৫-২৬ ২২:৩৫:০৯

  ঢাকা বিমানবন্দর। নভেম্বর ২০০৩। একটি বিমান ছেড়ে যাবে ব্যাংককের উদ্দেশ্যে। সব কিছু ঠিকঠাক। এর মধ্যে বিমানে ঘটাঘট উঠে পড়লেন সিকিউরিটি অফিসাররা। ইনকিলাব পত্রিকার এক সাংবাদিক সালাউদ্দিন শোয়েব চৌধুরিকে তল্লাশি করা শুরু করলেন। তারপর নিশ্চিত হয়ে তাকে নিয়ে নেমে গেলেন বিমান থেকে। ইনকিলাব পত্রিকা এদেশের হুজুরবান্ধব পত্রিকা। এই পত্রিকার সাংবাদিক ছিলেন সালাউদ্দিন শোয়েব চৌধুরি।    গোয়েন্দা তথ্য পেয়ে ডিবি তাকে এরেস্ট করে। পরে তার কাছে তল্লাশি করে সে তথ্যের সত্যতা পায়। শোয়েব চৌধুরির কাছে ত...বাকিটুকু পড়ুন

০ টি মন্তব্য      ৪৪৮ বার পঠিত         
সকল পোস্ট (ক্রমানুসারে)

নুরুল হক নুরু এবং সুলতান মনসুরের অবস্থা কী একই?

লিখেছেন Sabina Ahmed ২০১৯-০৩-১৩ ২০:০০:৩৪

নুরুল হক নুরকে ডাকসু নির্বাচনে জিততে দেয়া হয়েছে, যেখানে অন্যদের দেয়া হয় নাই। সরকার হয়তো আশা করছে নুর এই পজিশন প্রত্যাখ্যান করবে। কিন্তু নুর এখন ভালো করেই জানে তার পরবর্তী সিদ্ধান্ত কি হবে। গ্রুপের সবার সাথে আলাপ করে সঠিক সিদ্ধান্ত নেয়ার ম্যাচিওরিটি তার যেমন আছে, তেমন তার গ্রুপেরও আছে। আমার মতামত - নুর শ্যুড এক্সেপ্ট দ্যা রেজাল্ট। নুরের এই পজিশনা আর সুলতান মনসুরের পজিশন এক নয়। আর নুর শেখ মুজিবও নয়। নুর ইজ নুর। এই মুহূর্তে বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের নুরকে পুরাপুরি সাপোর্ট...বাকিটুকু পড়ুন

০ টি মন্তব্য      ২৯৪ বার পঠিত         

মানুষ ও জ্বীনের বিরোধ হবার নিত্য-নৈমিত্তিক কারণ...

লিখেছেন Nazrul Islam Tipu ২০১৯-০৩-১৩ ১৬:৩৭:২৬

মানুষকে জ্বালাতন করতে গিয়ে যদি কোন জ্বীনের ক্ষতি হয় কিংবা মারা যায়, তাহলে জ্বীন সম্প্রদায় তার পক্ষে দাঁড়ায় না। সে কারণেই জ্বালাতন কারী জ্বীনের কাছে যখন অন্য জ্বীন এসে প্রশ্ন করে কেন তুমি তাকে কষ্ট দিচ্ছ? তখন সে ভয়েই নরম হয়ে যায় এবং মাফ চাইতে থাকে। শক্ত করে ধরা হলে, সে ভয় পায়, নরম হয়ে মাফ চাইতে থাকে। সে কারণে বৈদ্যরা রোগীর প্রতি নিষ্ঠুর আচরণের ভান করে। যেন এখনই মেরে ফেলবে, এটাতে জ্বীন ঘাবড়ে যায়। গায়ে পড়ে মানুষদের কষ্ট দেওয়া, জ্বীন সম্প্রদায়ের দৃষ্টিতে অন্যায়-ক্ষমাহীন। বিপরীতে, মানুষ যদি কখনও...বাকিটুকু পড়ুন

০ টি মন্তব্য      ৩৯১ বার পঠিত         

পশ্চিমা দেশে ছাত্র সংসদের রূপ...

লিখেছেন জিবরান ২০১৯-০৩-১৩ ১৫:০৫:৫০

ব্রিটিশদের স্টুডেন্ট ইউনিয়ন বা আমাদের ছাত্র সংসদকে ইউএসএ তে বলে স্টুডেন্ট গভর্নমেন্ট। কোন কোন বিশ্ববিদ্যালয়ে এটাকে স্টুডেন্ট সিনেট বলে। আমার বিশ্ববিদ্যালয়ে শুধু অনার্সের ছাত্রদের নিয়ে স্টুডেন্ট গভর্নমেন্ট, তাই এই নির্বাচন কবে হয়ে গেছে আমি টেরও পাই নি। আজ ওয়েবসাইটে খুঁজে দেখলাম বর্তমান কমিটিতে কারা আছে। শুধু আমার এই বিশ্ববিদ্যালয় না, এই দেশের কোন বিশ্ববিদ্যালয়েই আমাদের দেশের মতো এত ঘটা করে এই সব নির্বাচন বুঝার উপায় নেই, নির্বাচিত প্রতিনিধিরা আমাদের নেতাদের মতো বিশাল দলবল নিয়ে টহল দিয়ে বেড়...বাকিটুকু পড়ুন

০ টি মন্তব্য      ৩৪৬ বার পঠিত         

আহমদ ছফার বর্ণনায় হূমায়ুন আজাদের চৌর্যবৃত্তি...

লিখেছেন জিবরান ২০১৯-০৩-১২ ২২:৫২:১৮

হুমায়ুন আজাদ দ্বারা আক্রান্ত হয়েছেন রবীন্দ্রনাথ, নজরুল সহ অনেকেই। এই তালিকায় আছেন আহমদ ছফাও। আজাদ রবীন্দ্রনাথকে বড় মানের কবি বলে মনে করতেন না। নজরুলকে তুচ্ছ তাচ্ছিল্য করতেন। তার বচন বাচন দেখে মনে হতো বাংলা সাহিত্যে তার চেয়ে শক্তিশালী লেখকের জন্ম গত এক হাজার বছরে ঘটে নাই এবং আগামী এক হাজার বছরেও ঘটবে না। কিন্তু আহমদ ছফা গুমুর ফাঁক করে দিয়েছেন তার একটি লেখায়। নিজের মৌলিক রচনা বলে হুমায়ুন আজাদ যেগুলো দাবি করেছেন তার অধিকাংশই তার চৌর্যবৃত্তির ফল। বাইরের লেখকদের বঙ্গীয় সংস্করণ। আহমদ ছফার এ সংক্রান্...বাকিটুকু পড়ুন

০ টি মন্তব্য      ১৯৩ বার পঠিত         

ক্ষুদ্র ভুলের ব্যর্থ গুহা-ভিযান...

লিখেছেন Nazrul Islam Tipu ২০১৯-০৩-১২ ২০:০৪:০৬

পরের বারে সিলায় গিয়ে দেখলাম কিছু দিনের ব্যবধানে সেখানে নিয়মের কিছু পরিবর্তন ঘটেছে। যে লেবু গাছ থেকে লেবু ছিঁড়ে অন্যায় করেছিলাম, সে স্থানটি পরিপূর্ণ ফাঁকা! গাছগুলো কেটে সেখানে একটি পাকা ঘর উঠেছে। ঘরের মাঝখানে এক কোমর পরিমাণ উঁচু কবর আকৃতির রঙ্গিন স্তম্ভ বানানো হয়েছে। সেটাকে দৃশ্যমান করতে চিকন রশিতে রঙ্গিন কাগজ পেঁচিয়ে ঘিরে রাখা হয়েছে। কবরের মত দেখতে এই জিনিষটা কি? আমাদের গ্রাম্য চাচার এমন প্রশ্নে তিন জন থেকে তিন ধরনের উত্তর পেলেন। তিনি আমার মায়ের কাছে ব্যাপারটি পরিষ্কার করতে গিয়ে, নিজের অভিজ্ঞত...বাকিটুকু পড়ুন

০ টি মন্তব্য      ৩০৭ বার পঠিত         

আজকের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, আল মাহমুদ, একটি কবিতা...

লিখেছেন কহেন কবি ২০১৯-০৩-১২ ১৭:০৬:৪৮

কবিতাটি যখন প্রকাশিত হয়, আল মাহমুদের বিরুদ্ধে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে মিছিল হলো। সহিংস মিছিল। আল মাহমুদের উপর দৈহিক হামলার উস্কানি দিচ্ছিলো প্রগতিশীল কিছু সাংস্কৃতিক সংগঠন ও লেখক। কিছু ভাড়াটে গুণ্ডা লেলিয়ে দেয়া হয় তাঁর বিরুদ্ধে। কবিতাটিতে তিনি বাংলাদেশের চারদিক ঘিরে যে কালো মেঘ, যে আসন্ন ঝড়, যে মোচনহীন পাপের কামড়, তার বিবরণ দিয়েছেন। আজকের বাংলাদেশকে অঙ্কণ করেছেন। আজকের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এবং শিক্ষাগারসমূহ এবং বেশ্যাপণ্ডিত এবং নেংটো রাজনীতি এবং জাতিসত্ত্বার ভাগ্যাকাশে ইঙ্গিতময় কালো হরফের পঙক্তিমাল...বাকিটুকু পড়ুন

০ টি মন্তব্য      ১২৫৪ বার পঠিত         

মানুষের সাথে জ্বীনের সম্পর্ক হবার চিরাচরিত পদ্ধতি

লিখেছেন Nazrul Islam Tipu ২০১৯-০৩-১২ ১৫:৩৫:৩৫

দীর্ঘ জীবনের অভিজ্ঞতায় দেখেছি, জ্বীনেরা তিন ভাবে মানুষের কাছাকাছি হয়। এক - হঠাৎ মানুষকে আছর করে তথা আবিষ্ট করে ফেলে। এতে আক্রান্ত ব্যক্তি তার স্বাভাবিক খাসিয়তের চেয়ে ভিন্ন ধরনের আচরণ শুরু করে। ধমক, গালাগালি, খিস্তি-খেউর কিছুই বাদ যায়না। চিরদিন যাকে ভদ্রলোক হিসেবে দেখেছেন, জ্বীনে আক্রান্ত হবার পরে তাকে অভদ্র আচরণ করতে দেখা যেতে পারে! এ কারণে মানুষ তাকে ভয় পায়। এই অভদ্র আচরণ কিন্তু মানুষের নয়, তার উপর যে জ্বীনে আছর করেছে, মূলত তারই ব্যক্তি চরিত্র। এই চরিত্র দেখেই বুঝা যাবে, মানুষটিকে কোন শ্রেণী...বাকিটুকু পড়ুন

০ টি মন্তব্য      ১০৪৮ বার পঠিত         

জীবন থেকে নেওয়া ...

লিখেছেন রূপা ২০১৯-০৩-১২ ১৫:৩৩:৪৯

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এর সর্বোচ্চ ডিগ্রী থাকা স্বত্তেও মোবাইল ফোন, কম্পিউটার, ল্যাপটপ, ফেসবুক এসবের ব্যাপারে আমি একেবারেই মূর্খ ছিলাম । যাকে বলে আনাড়ি। মোবাইল, ল্যাপটপ, ফেসবুক নিয়ে আমার ছেলেরা, আত্মীয়রা, বন্ধুরা আশেপাশের সবাই যখন পাকাপোক্ত আমি তখন অবুঝ শিশু। আগ্রহ কম থাকার কারণেই সম্ভবতঃ এই অবস্থা। ৯৬/৯৭ সালে সবার হাতে হাতে যখন মোবাইল তখন আমাদের পাঁচ সদস্যের পুরো পরিবারে কারোরই মোবাইল ছিল না। সেইসময় বড়ছেলে আর মেঝ ছেলে সপ্তাহে তিনদিন আবাহনী মাঠে ক্রিকেট প্রাকটিস করতে যায়। দুই ছেলেই বয়সভিত্তিক ক্রি...বাকিটুকু পড়ুন

০ টি মন্তব্য      ৪৬৩ বার পঠিত         

অতঃপর সুন্দর শাহের সিলায়...

লিখেছেন Nazrul Islam Tipu ২০১৯-০৩-১১ ১৮:৩৩:৪৪

সুন্দর শাহের সিলায় গিয়ে কিছু মানত করলে, শর্ত সাপেক্ষে সে মানত পুরো হয়। শরতের এক সকালে মা, খালা, চাচী, জেঠি মিলে, ছোট-খাট এক তীর্থ দল আমাকে নিয়ে, সুন্দর শাহের সিলায় উপনীত হলেন। 'হালদা নদী' বাংলাদেশের অর্থনীতিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে। স্রোতস্বীনি হালদার অনেক উজানে নদীর বাঁকের এক তীরে ইস্পাহানী গ্রুপের বিস্তীর্ণ চা বাগান; অন্য তীরে সুন্দর শাহের সিলার অবস্থান। সিলার সামনে দিয়ে চট্টগ্রাম থেকে পার্বত্য চট্টগ্রাম যাবার সুন্দর কাঁচা রাস্তা আছে। দারুণ মনোমুগ্ধকর স্বাস্থ্যকর স্থান! গরম কালে গরম থাকেন...বাকিটুকু পড়ুন

০ টি মন্তব্য      ৪০৬ বার পঠিত         

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের এক নম্বর ছাত্র সমস্যা কি বলেন তো??

লিখেছেন Muhammad Sajal ২০১৯-০৩-১১ ১৭:০৫:২৮

আমি বলবো, এক নম্বর ছাত্র সমস্যা হল আবাসন সমস্যা। ছাত্রদের থাকার জায়গার সঙ্কট এবং এই সঙ্কটকে পুজি করে চালায়ে যাওয়া ছ্যাচড়া লেজুড়বৃত্তিকেন্দ্রিক রাজনীতি শুধু ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের না, গোটা বাংলাদেশের ইতিহাসে সবচাইতে বড় ছাত্র সমস্যা। এই সমস্যার জীবাণু ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে অসামান্য নৈপুণ্যের সাথে দেশের সমস্ত পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে আওয়ামী লীগ এবং বিএনপি রফতানি করসে।ঢাকা শহরে বাসা ভাড়া করে থাকাটা খুব একটা সহজ ব্যাপার না, স্পেশালি যখন কোন মফস্বলের মধ্যবিত্ত পরিবার তার সবচেয়ে ভাল ছেলে বা মেয়েটাকে ঢাক...বাকিটুকু পড়ুন

০ টি মন্তব্য      ৩৬৩ বার পঠিত         

 নিউজ আপডেট

 এ সপ্তাহের সর্বাধিক পঠিত পোস্ট

 এ সপ্তাহের সর্বাধিক মন্তব্যকৃত পোস্ট

 আর্কাইভ